1. admin@bdchannel4.com : 𝐁𝐃 𝐂𝐡𝐚𝐧𝐧𝐞𝐥 𝟒 :
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৫:৪৫ পূর্বাহ্ন

নান্দাইলে জুয়া ও মাদক অপরাধীদের আতংক ওসি আবদুল মজিদ 

নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি।।
  • প্রকাশিত: সোমবার, ১৩ মে, ২০২৪
  • ৬৫ বার পড়া হয়েছে
নান্দাইল: ওসি আবদুল মজিদ

* ৫ মাসে ১০২ জন গ্রেফতার,

* ১৯জন ভিকটিমসহ উদ্ধার ৩২২

 * ৪৩৯ পিস ইয়াবা ও সাড়ে ৭ কেজি গাঁজা জব্দ

সামাজিক সকল অপরাধের মূলহোতা হচ্ছে জুয়া ও মাদক। জুয়া ও মাদকের কবলে পড়ে ধ্বংস হচ্ছে যুব সমাজসহ আগামী প্রজন্ম। আর সেই জুয়া ও মাদককে সমাজ থেকে নির্মুলের মাধ্যমে সভ্য সমাজ গঠনে কাজ করছে পুলিশ প্রশাসন। ঠিক তেমনি ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলাকে জুয়া ও মাদক মুক্ত করতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন নান্দাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবদুল মজিদ। যোগদানের পর থেকে ৫ মাস ১৩ দিনে ১০২জন অপরাধীকে গ্রেফতারের মধ্যে মাদক আইনে ৪৪জন আসামি, জুয়া আইনের প্রসিকিউশনে ৫০ জন আসামি ও জুয়া আইনে ৮জন আসামিকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন। এছাড়া ১৯জন ভিকটিম উদ্ধার, ১৮টি অটোরিক্সা, ৮টি ট্রাক-মিনি-পিকআপ, ১টি মোটরসাইকেল, ৪২টি মোবাইল ও ২২২ বস্তা ভারতীয় চিনি ও চোরাই  ৫ হাজার ৪১০ টাকা উদ্ধার করেছেন। পাশাপাশি ৩ লাখ ২৮ হাজার ৪শ’ টাকা মূল্যের ৪৩৯ পিস ইয়াবা ও সাড়ে ৭ কেজি গাঁজা জব্দ করা হয়।

জানা গেছে, গত ১০ই ডিসেম্বর ওসি আবদুল মজিদ যোগদানের সময় তিনি জুয়া ও মাদক অপরাধীদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেন। এছাড়া জুয়া ও মাদক নির্মুলে নান্দাইল আসনের সংসদ সদস্য পরিকল্পনা মন্ত্রী মেজর জেনারেল (অব:) আব্দুস সালামের নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার ও গৌরীপুর সার্কেল এএসপি’র সহযোগিতায় জুয়া ও মাদক অপরাধীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে দিয়েছেন। প্রতিদিন উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১৩টি ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে জুয়া, মাদক, চোরাকারবারী ও বিভিন্ন অপরাধীদের গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করছেন। তাছাড়া  অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িতদের কাউকেই ছাড় দিচ্ছেন না। ফলে জুয়া ও মাদক কারবারীরা এখন অন্যত্র পালিয়ে বেড়াচ্ছে। এতে কমেছে সন্ত্রাস, অস্ত্রের ঝনঝনানি, মাদক, কিশোর অপরাধসহ সকল প্রকার অপরাধ। বেড়েছে সেবার মানও। দায়িত্ব পালনকারী পুলিশ সদস্যদের আচরণে মুদ্ধ হচ্ছেন সেবা নিতে আসা সাধারণ মানুষ। আর এটাই হচ্ছে বর্তমান ওসির আন্তরিকতার সুফল। ধনী-গরীব সবার জন্য এই ওসির দরজা সবসময় উম্মুক্ত। বর্তমানে পুলিশি তৎপরতা বৃদ্ধি পাওয়ায় থানা এলাকায় জুয়া, মাদক, চুরি, ডাকাতিসহ ছিনতাইয়ের মত অপরাধ সহনশীল পর্যায়ে রয়েছে। বিভিন্ন অপকর্মের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ায় এলাকাবাসী ওসির প্রশংসা করেছে। এছাড়া আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে জরুরী ভিত্তিতে তিনি প্রতিটি ওয়ার্ডে বিট পুলিশিং কমিটিকে সচল করে চলেছেন।

নান্দাইল মডেল থানার ওসি আবদুল মজিদ বলেন, মানুষের সেবা ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। আমি মানবতা ও মানবিক দৃষ্টি কোণ দিয়ে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাই। পুলিশকে যদি অপরাধীদের বিষয়ে তথ্য দেওয়া হয়, তাহলে পুলিশ এসব অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করতে পারবে। তাহলে এ দেশ একদিন অপরাধ মুক্ত বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন সোনার বাংলায় রূপান্তরিত হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং