1. admin@bdchannel4.com : 𝐁𝐃 𝐂𝐡𝐚𝐧𝐧𝐞𝐥 𝟒 :
বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১০:৪২ অপরাহ্ন

ঈদেও পর্যটকশূন্য কিশোরগঞ্জের নিকলীর হাওর

আশরাফুল ইসলাম তুষার, চিফ রিপোর্টার।।
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৫৯ বার পড়া হয়েছে
পর্যটক শূন্য নিকলী হাওরের বেড়িবাঁধ এলাকা

 

কিশোরগঞ্জের হাওরের প্রবেশপথ বলা হয় নিকলী উপজেলাকে। হাওর অধ্যুষিত নিকলী উপজেলায় সারাবছরই পর্যটকদের আনাগোনা থাকে। তবে এবার পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন বা এর পরে পর্যটকদের আনাগোনা দেখা যায় নি তেমন।

সোমবার, ১৫ এপ্রিল সরেজমিনে নিকলী হাওর এলাকায় গিয়ে দেখা যায়,এখন শুষ্ক মৌসম তাই হাওরে পানি নেই বললেই চলে। অন্যদিকে বৈশাখ মাস শুরু হওয়ায় সবাই ঘরে বোরো ফসল তোলা নিয়ে ব্যাস্ত সময় পার করছে। এরকম পরিস্থিতি হাওরে পর্যটক না থাকার কারণ বলে  মনে করছে স্থানীয়রা।

নিকলী বেড়িবাঁধ এলাকায় সারাবছরই শহর বন্দর গ্রাম থেকে পর্যটকরা এসে ঘুরেফিরে আড্ডা দিতো। যার ফলে বেড়িবাঁধ এলাকায়,ফাস্টফুড, হোটেল,রেস্টুরেন্টসহ বিভিন্ন দোকানপাট গড়ে উঠেছে।

কিন্তু এবার ঈদুল ফিতরের দিন বা ঈদের ৫ দিন পেরিয়ে গেলেও তেমন একটা পর্যটক  চোখে পড়েনি। যার ফলে অনেকটা অলস সময় কাটাচ্ছে ফাস্টফুড, রেস্টুরেন্ট ও হোটেল মালিকরা। তাছাড়া বেড়িবাঁধ এলাকায় গড়ে উঠা স্থানীয় দোকানিরাও বসে দিন পার করছেন।কেউবা কৃষি কাজ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

স্থানীয় এক বাসিন্দা সালমান মুক্তাদির বলেন,সারাবছরই নিকলী হাওরে বিশেষ করে বেড়িবাঁধ এলাকায় পর্যটকদের বিশেষ আনাগোনা থাকে। কিন্তু এবারের চিত্র ভিন্ন।ঈদ গেলেও পর্যটকদের দেখা মিলছে না।

অপর এক স্থানীয় বাসিন্দা মোবারক বলেন,আমাদের নিকলীতে বর্ষায়  পানির সময় প্রচুর পর্যটক আসে। নৌকা দিয়ে ঘুরে ও বেড়িবাঁধ এলাকায় বসে আড্ডা দেয়। এখন পানি নেই তাই হয়তো বেড়িবাঁধ এলাকা পর্যটকশূন্য।

বেড়িবাঁধ এলাকায় ঘুরতে আসা আরমান বলেন,এখন শুষ্ক মৌসুম হওয়ায় ও রোদের তাপ বেশি থাকায় এখানে এসে তেমন ভাল লাগছে না। বর্ষায় নতুন পানির আগমণ হলে বেড়িবাঁধ এলাকায় আবার ঘুরতে আসবো পরিবার পরিজন নিয়ে তখন ভাল লাগবে।

এ বিষয়ে নিকলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পাপিয়া আক্তার বলেন,নিকলীর হাওরে সাধারণত বর্ষায় পানির মৌসুমে পর্যটকরা ঘুরতে আসে।আমরা আশা করছি সামনে নতুন পানির আগমণের সাথে সাথে পর্যটকদের আনাগোনা বাড়বে।আমরা এখানে আগত পর্যটকদের জন্য সার্বক্ষণিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করবো সারাবছরের ন্যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং